,



নিরবে চলে গেলেন নাজিম অাহমদ ( অাবুল)- এজিঅাইসিও চেয়ারম্যান এম এ হুসাইনের গভীর শোক!!

নিজস্ব প্রতিবেদক :  বিয়ানীবাজার উপজেলার অালীনগর ইউনিয়নের পূর্ব অালীনগর গ্রামের বিশিষ্ট সমাজ সেবক বিশিষ্ট রাজনৈতিক ব্যাক্তিত্ব ছিলেন মরহুম মনির অালী | তিনির বড় ছেলে নাজিম অাহমদ (অাবুল) অামেরিকা নিউইয়র্ক নিউজার্সিতে পরিবার সহ দীর্ঘ প্রবাসী জীবনে হঠাৎ করে ফুসফুসে মারাত্মক নিউমুনিয়া রোগে আক্রান্ত হয়ে গুরুতর  অসুস্থ হয়ে পড়েন এবং বিগত ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইংরেজি রোজ বৃহস্পতিবার বিকাল ৪. ২৬ মিঃ সময় নিউইয়র্কেে র একটি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। “ইন্নালিল্লাহিইন্নাইলাহিরাজিউন”
পরদিন শুক্রবার বাদ জুম্মা বেলা ২.০০ টায় স্হানীয় জালালাবাদ জামে মসজিদে তিনির নামাজে জানাজা শেষে নিউজার্সি মুসলিম গুরুস্থানে তিনিকে সমাহিত করা হয়।

লন্ডন প্রবাসী বিশিষ্ট সমাজ সেবক  টাইমস ট্রিবিউন  এর প্রধান উপদেষ্টা এজিঅাইসিও চেয়ারম্যান এম এ হুসাইন জনাব নাজিম অাহমদ (অাবুল) এর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেন মানবতাবাদী জনদরদি মরহুম নাজিম অাহমদ এর জীবনের সৃতি চারজন করতে গিয়ে তিনি ভারাক্রান্ত হয়ে পড়েন।

অালীনগর ইউনিয়নের সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মরহুম এম এ গণী মিয়ার সাথে মরহুম মনির অালীর রাজনৈতিক, সামাজিক,স্বাধীনতা সংগ্রাম শিক্ষা সাংস্কৃতিক বিষয়ে শক্তিশালী ঐক্য ছিলো। এম এ হুসাইন বলেন নাজিম জুনিয়র হলেও পাশাপাশি হওয়ার সুবাদে নাাাজিমের সাথে অামার …..শিক্ষাজীবন ও প্রবাস জীবন, রাজনৈতিক সামাজিক পারিবারিকগভীর সম্পর্ক বিদায় প্রায় সময় নাাাজিম ফোনে সাম্প্রতিক বিষয়ে মতবিনিময় করতেন। এলাকারএবং ইউনিয়নের উন্নয়ন অতীত বর্তমান সাম্প্রতিক বিষয়ে  অলোচনার করতেন এবং  বলতেন অাপনার পিতা সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মরহুম এম এ গনী মিয়ার শূন্যতা অামরা গভীর ভাবে উপলব্ধি করতেছি । এলাকার ইউনিয়নের জন্য অসাধারণ অবদান রেখেগেছেন তিিনি । অাবুল এজিঅাইসিও মানবিক পরিকল্পনা নিয়ে সফলতা সমৃদ্ধি নিয়ে অামাদের কে উৎসাহ অনুপ্রেরণা  দিতেন  । দেশবাসী এজিঅাইসিওর মতে তিনি পরিবার, পরিজন এলাকার অসহায় দরিদ্রের কল্যাণে অসামান্য অবদান রেখেছেন।  অত্যান্ত সাদা মনের মানুষ ছিলেন আবুল ।তিনির মৃৃৃত্যু সংংবাদ পাওয়া মাত্র সমগ্র পরিচিত  জনের মাঝে একটি শোকের ছায়া নেমে এসেছে ।  এজিঅাইসিও পরিবারের ক্ষ হতে চেয়ারম্যান   তিনির রুহের মাগফেরাত কামনা করেছেন।

 

 
For other language minorities–and especially those write a paper for me with dark find more info complexions, he noted–english-only schooling brought difficulties.

Comments are closed.

আরো সংবাদ