,



সিলেটের গোলাপগঞ্জে শিক্ষার আলো থেকে বঞ্চিত বেদে শিশুরা

মোঃ রুবেল আহমদ, গোলাপগঞ্জ : দারিদ্র্য আর যাযাবর জীবনের কারণে শিক্ষার আলো থেকে বঞ্চিত বেশির ভাগ বেদে সম্প্রদায়ের শিশুরা। এ কারণে বংশানুক্রমে একই পেশায় থাকছে তারা। সুবিধা বঞ্চিত এসব শিশুর জন্য সরকারি-বেসরকারি উদ্যোগ থাকলেও তার দেখা নেই গোলাপগঞ্জে। অন্যদিকে বন্য প্রাণী ধ্বংস ও নদ-নদীর সংখ্যা কমে যাওয়ায় মানবেতর জীবন যাপন করছে বেদে পরিবার গুলো। শিক্ষাতো দুরের কথা দু’বেলা খাওয়া মুখে তোলে দেওয়াটাই যেন এসব পরিবারের বাবা মায়ের জন্য কঠিন হয়ে পড়েছে।

গোলাপগঞ্জ উপজেলার পৌরসদরে অবস্থিত মডেল থানার পাশে কালো প্লাষ্টিক দিয়ে তাঁবু টাঙ্গিয়ে ১২টি বেদে পরিবার থাকছে ১২বছর ধরে। কথা হয় বেদে পল্লীর সরদার ৩৫বছর বয়সী দ্বীন ইসলামের সাথে। তিনি জানান, তারঁ দুই ছেলে ও এক মেয়ে তিনি তাদের শিক্ষিত করতে চান-চান যাযাবর জীবনের অবসান। অনেকেই এসে সাহায্য করার আশ্বাস দেন। কিন্তু তাদের ভাগ্যের কোন পরিবর্তন হয় না। যাযাবর জীবনের অবসান হয় না। বেদে পল্লীর অনেকেই ছেলে মেয়েদের শিক্ষিত করতে চান। কিন্তু জাত-ব্যবসার টানে আবার তারা ছুটে চলেন এক জায়গা থেকে আরেক জায়গা। এ ভাবে চলছে তাঁদের জীবন। তবে বিভিন্ন মৌলিক অধিকার থেকে বঞ্চিত এসব শিশুরা যেন আধারের পথেই হাটছেন।
স্কুলে যাওয়ার কথা জানতে চেয়েছিলাম জাহিদ, গোলজারের কাছে তারা জানায়,বাবা মায়ের জায়গা জমি নেই। নেই টাকা পয়সা এই কারণে বাবা মা পড়াশুনা করাতে পারে না। পেশাগত কারণে অনেক সময় বাবা-মা তাদের সঙ্গে করে নিয়ে যায়। এখন থেকে সব কিছু শিখতে হবে তাদের নইলে বড় হয়ে কি করে খাবে। বেদে পল্লীর স¤্রাট আহমদ জানান, সরকারি ভাবে যদি আবাস্থলের ও কাজের ব্যবস্থা করা যেতো তাহলে তাঁরা কাজ করে ছেলে মেয়েদের স্কুলে পাঠাতে পারতেন।

গণদাবী পরিষদ গোলাপগঞ্জ উপজেলা শাখার সভাপতি ডাঃ হাবীবুর রহমান বলেন, শিক্ষাগ্রহণ একজন নাগরিকের মৌলিক অধিকার। যা বেদে শিশুদের রয়েছে। এই শিশুদের শিক্ষাদানের জন্য সংশ্লিষ্ট সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ