,



প্রশ্ন ll সুরাইয়াতুল জান্নাতী মুক্তা

যেখানে নাটক করেই লক্ষো মানুষের দৃষ্টি আর সম্মান পাওয়া যায়, লক্ষো টাকার মালিক হওয়া যায়, নিজের সৌন্দর্য রক্ষা করে আরামে আয়েশে জীবন-যাপন করা যায়, সেখানে একজন কেনো রোদে-বৃষ্টিতে কুদাল কুপিয়ে ছোট সম্মানের পরিচয় পেয়ে, নিজেকে স্রিহীন বানিয়ে কষ্টে হত দরিদ্রে জীবন কাটাবে? জনগন নাটক দেখে পেট ভরো, খাদ্য দিয়ে নয়।

যেখানে টাকার স্বচ্ছলতায় অন্যের হাতে পাঠানো জাকজমক পাওয়া নিমন্ত্রণ পত্রটি হয়ে যায় দামি, সেখানে কেনো একজন স্ববিনয়ে আন্তরিকতার সাথে মানুষের বাড়ি যেয়ে ভালোবেসে আমন্ত্রণ করবে? জনগন মানুষের অর্থের বিনিয়োগ দেখে আনন্দিত হও,মানুষের আন্তরিক পরষ্পর ভালোবাসা দেখে নয়।

যেখানে অধিক অর্থের গরমে অন্যায়কারীকে মুখের উপর কথা বলার সাহস দেখানো হয়ে যায় অপরাধ, সেখানে কেনো একজন অন্যায় এর প্রতিবাদ করে নিজেকে করবে অপরাধী? বরং অপরাধ সহে আরেকটি অপরাধ করে নিজেকে কুশলমুক্ত রাখা যায়। জনগন দুর্নীতিকে আপন করে নেও, স্বেচ্ছাচারীতার দমন করা কি দরকার?

যেখানে উগ্র পোশাকে, নানান সাজে সমাজে সৌন্দর্যের পরিচয় পাওয়া যায়, মর্ডান হওয়ার খেতাব পাওয়া যায়, সেখানে একজন কেনো নম্র পোশাকে শালীনতা বজীয়ে অসৌন্দার্যের পরিচয় নিয়ে, কেনো বহন করবে আধুনিক জীবনে খ্যত হওয়ার খেতাব? জনগন বাহ্যিক সৌন্দার্যে আকর্ষিত হও, চিকচিক করলে সোনা হয় না এ প্রবাদটা তাহলেই ভুলে যাওয়া যায়।

যেখানে মুখস্ত লেখাটা বেশি গ্রহন যোগ্যতা পাওয়া যায়, মেধাবী শিক্ষার্থীর পরিচয় পাওয়া যায়, সেখানে একজন কেনো নিজের বুদ্ধিমত্তাকে কাজে লাগিয়ে অগ্রহন যোগ্য বদনাম নিয়ে, দুর্বল মেধাবীর পরিচয় পেতে যাবে? জনগন বিদ্যার পুথি গিলে খাও, সৃজনশীলতা চর্চার লাভ নায়।

যেখানে আসৎ উপায়ে অধিক অর্থের মালিক হয়ে সবার ভেতর সেরা হয়ে যায়, সম্মানের চেয়ারে তাকে বসানো হয়, জীবন যাপন সুখে স্বচ্ছলতা তারাই পেয়ে যায়, সেখানে একজন কেনো গায়ে গতরে খেটে সৎ পথে চলে ছোট হয়ে জীবন যাপন করবে, কেনো আর্থিক অস্বচ্ছলতায় ভুগবে ভাই? জনগন তেলা মাথায় তেল দিয়ে, সততা বিক্রি করে দাও, সততার মূল্য যে অতি নগন্য হয়ে গেছে আজ।

লেখক : সুরাইয়াতুল জান্নাতী মুক্তা, শিক্ষার্থী।

TT/R

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ